সাত বছর বয়সে মাত্র কয়েক মাসে কোরআন হিফজ করল ওয়ারদা!

0
213

মাত্র কয়েক মাসে পবিত্র কোরআন মুখস্থ করেছে সাত বছর বয়সী আমাতুল্লাহ ওয়ারদা। এর আগে আমাতুল্লাহর বোন যাহ্রা-ই-বেহেশতী (আট বছর বয়সে) আট মাসের কম সময়ে হিফজ সম্পন্ন করেছিল।

তখন তারা মদিনায় থাকত। এর আগে তাদের রত্নগর্ভা মা মাত্র চার মাসে পবিত্র কোরআন হেফজ সম্পন্ন করেছিলেন। খুদে হাফেজা ওয়ারদার বাবা মাওলানা যাকারিয়া মাহমুদ মাদানি একজন বিশিষ্ট আলেম।

তিনি রাজধানীর মিরপুরে অবস্থিত মানাহিল মডেল মাদরাসার প্রতিষ্ঠাতা পরিচালক। তিনি মদিনা ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ে এমফিল গবেষণা করছেন।

ওয়ারদার কোরআন হিফজের আনন্দে তিনি গণমাধ্যমকে বলেন, মহামহিম দয়াময় আল্লাহ তাআলা আমার ওপর এত বেশি অনুগ্রহ করেছেন যে তা গুণে শেষ করতে পারব না। তিনি অত্যন্ত করুণা করে আমার ছোট মেয়ে সাত বছর পাঁচ মাসের আমাতুল্লাহ ওয়ারদাকে পবিত্র কোরআন অন্তরে ধারণ করার তাওফিক দিয়েছেন, আলহামদুলিল্লাহ। আজ সে হিফজুল কোরআনের শেষ সবক শুনিয়েছে।

তিনি আরো বলেন, এ এক এমন প্রাপ্তি যার তুলনা হয় না। এমন এক অনুভূতি যা প্রকাশ করা যায় না। এমন প্রশান্তি যা বলে বোঝানো যায় না। আবেগাপ্লুত চোখের পানি ধরে রাখতে পারিনি! যেমন পারিনি আমার বড় মেয়ে ও তার মায়ের হিফজের পরও।

জীবনের যেকোনো প্রাপ্তি ও সফলতার চেয়ে কোরআনের এ প্রাপ্তি আমার কাছে অনেক বড়, অনেক সুখের এবং অনেক সম্মানের। এখানে মেয়েদের আম্মুর কথা না বললেই নয়, সে মেয়েদের পেছনে আঠার মতো লেগেছিল। সব অবদানই তার। মূলত সেই মেয়েদের শিক্ষিকা। আল্লাহ তাকে দুনিয়া ও আখিরাতে উত্তম বিনিময় দিন।

সবার কাছে দোয়া কামনা করি, আমার স্ত্রী এবং মেয়েদের সম্মান ও সাফল্যের ধারা যেন আজীবন অব্যাহত থাকে। তারা যেন ইলম-আমল ও আখলাকের আঁকর হয়। সর্বোপরি মহান আল্লাহ যেন তাদের দ্বীনের সেবক হিসেবে কবুল করেন। আমিন

BÌNH LUẬN

Please enter your comment!
Please enter your name here